Select your Top Menu from wp menus
Last updated: 27/02/2021 at 8:50 PM | আজ বৃহস্পতিবার, ৪ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯ ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯ রজব, ১৪৪২ হিজরি
শিরোনাম

অর্থ আত্মসাত মামলায় ৪ অগ্রণী ব্যাংক কর্মকর্তা দণ্ডিত

প্রতারণামূলকভাবে অগ্রণী ব্যাংকের প্রায় ১৯ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় ব্যাংকটির ৪ কর্মকর্তাকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন ঢাকার একটি বিশেষ আদালত।

দণ্ডিতরা হলেন, অগ্রণী ব্যাংকের সিনিয়র প্রিন্সিপ্যাল অফিসার মোহাম্মদ উল্লাহ ও সলিমুল্লাহ, এবং কর্মকর্তা সারোয়ার হোসেন ও ম্যানেজার জুলফিকার আলী। তারা সবাই অগ্রণী ব্যাংকের গ্রিনরোড শাখার বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ছিলেন।

আসামিদের মধ্যে মোহাম্মদ উল্লাহকে ১০ বছর, সলিমুল্লাহকে ৭ বছর এবং সারোয়ার হোসেন ও জুলফিকার আলীকে ৩ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও প্রত্যেককে ১৮ লাখ ৭৮ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় আসামি রাবেয়া রহমানকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

আসামিদের মধ্যে মোহাম্মদ উল্লাহ ও সলিমুল্লাহ পলাতক রয়েছেন। অপর দুই আসামিকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সোমবার ঢাকার ২ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক হোসনে আরা বেগম এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ের বিবরণ থেকে জানা যায়, ১৯৯৮ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর মামলার প্রধান আসামি রাবেয়া রহমান অগ্রণী ব্যাংকের গ্রিনরোড শাখায় একটি হিসাব খোলেন। এরপর তার একাউন্টে টাকা না থাকা সত্ত্বেও ব্যাংকের অপর কর্মকর্তাদের সহায়তায় তিনি বিভিন্ন সময় ১০ লাখ ৯৮ হাজার টাকা উত্তোলন করেন।

এ ছাড়াও আসামি রাবেয়া অপর আসামিদের সহায়তার জিয়াউল আলম নামে একটি ভুয়া ঋণ মঞ্জুরীপত্র তৈরি করে আরও ৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন।

এভাবে ব্যাংকের মোট ১৮ লাখ ৭৮ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ দুদকের সহকারী পরিচালক আবু বকর সিদ্দিক ২০০৪ সালের ৩০ জুন ধানমন্ডি থানায় এ মামলাটি দায়ের করেছিলেন।

একই ধরনের অপরাধে আসামিদের নামে আরও ২৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছিল। তার মধ্যে বর্তমানে ১৭টি মামলা বিভিন্ন আদালতে বিচারাধীন রয়েছে মর্মে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন দুদকের স্পেশাল পিপি কবির হোসাইন।

ঘটনাটি তদন্ত করে ২০১১ সালের ১৯ জুন আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করা হয়। চার্জশিটের ৮ সাক্ষীর মধ্যে রায় ঘোষণার আগে ৭ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত।

দুদকের পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন প্রতিষ্ঠানটির স্পেশাল পিপি মো. কবির হোসাইন। – See more at: http://www.banglanews24.com/beta/fullnews/bn/333471.html#sthash.yj4s4vj6.dpuf

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: