Select your Top Menu from wp menus
Last updated: 29/03/2021 at 10:14 PM | আজ বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১ রমজান, ১৪৪২ হিজরি
শিরোনাম

জেনে নিন কোথায় পাবেন ট্রাভেল লোন

10731157_892259107451423_9159602436428381847_n

রেড নিউজ ২৪.কম

যারা ভ্রমন করতে ভালবাসেন অথচ অর্থের সমস্যার কারনে কোথাও যাওয়া হয়ে ওঠেনা তাদের জন্য সুখবর বয়ে নিয়ে এসেছে ব্র্যাক ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, দি সিটি ব্যার্ক লিমিটেড, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক লিঃ এবং ডাচ্-বাংলা ব্যাকং লিমিটেড। সল্প বেতনের চাকুরিজীবি আর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের কথা মাথায় রেখে ব্যাংক গুলো ভ্রমন ঋণের ব্যবস্থা করছে। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক কোথায় কিভাবে ট্রাভেল লোন পাবেন।
ব্র্যাক ব্যাংক:ব্যবসায়ী এবং চাকরিজীবি উভয় শ্রেণীর জন্য ট্রাভেল ঋণের ব্যবস্থা রয়েছে ব্র্যাক ব্যাংকে। তবে ঋণ পাওয়ার জন্য প্রত্যেককে আলাদা আলাদা কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। যেমন চাকরিজীবিদের জন্য ন্যূনতম মাসিক বেতন হতে হবে ১৫ হাজার টাকা। আবেদনপত্রের সাথে পে স্লিপ, বিগত ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট, ভিসা ও পাসপোর্টের ফটোকপি জমা দিতে হবে। ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে মাসিক ইনকাম কমপক্ষে ৩০ হাজার টাকা হলে তিনি ট্রাভেল লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আবেদন পত্রের সাথে জমা দিতে হবে ট্রেড লাইসেন্স, টিন সার্টিফিকেট এবং ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট। সাধারণত ৫০ হাজার টাকা থেকে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত জামানতবিহীন ট্রাভেল ঋণ দেয় ব্র্যাক ব্যাংক। এ ঋণ শোধ করতে হবে ১২-৩৬ মাসের মধ্যে। ঋণের জন্য যোগাযোগঃ ১০ কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ (২য় তলা), বনানী, ঢাকা-১২১৩।
দি সিটি ব্যাংক লিমিটেড:সিটি ব্যাংকের আলাদাভাবে ট্রাভেল লোন সার্ভিস না থাকলেও কেউ শর্তপূরণ সাপেক্ষে পার্সোনাল লোন হিসাবে ট্রাভেল লোন পেতে পারেন।ঋণের পরিমান সর্বনিম্ন ৫০ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত। পরিশোধের মেয়াদ ১২-৬০ মাস। সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা পর্যন্ত ঋন গ্রহণের ক্ষেত্রে কোন প্রকার গ্যারান্টার প্রয়োজন হয় না। চাকরিজীবিদের ক্ষেত্রে বর্তমান চাকরিতে ন্যূনতম ছয় মাস সহ এক বছরের কর্ম অভিজ্ঞতা থাকতে হবে এবং মাসিক আয় ন্যূনতম ১৫ হাজার টাকা। ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে পূর্বের মত নিয়ম কানুন। যোগাযোগঃ জীবন বীমা টাওয়ার, ১০, দিলকুশা, ঢাকা।
প্রাইম ব্যাংক:৩০ হাজার থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ট্রাভেল ঋণ প্রদান করে প্রাইম ব্যাংক। এ ব্যাংকের ঋণ পেতে আপনাকে ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমে কোথায় যাবেন, কতদিন থাকবেন এসব বিস্তারিত তথ্য পূর্ণ করে কোটেশন নিয়ে আবেদন করতে হবে। চাকরিজীবিদের আবেদনপত্রের সাথে অফিস আইডি, পাসপোর্টের ফটোকপি, দুজন গ্যারেন্টরের অঙ্গীকার নামা জমা দিতে হবে। ব্যবসায়ীর ক্ষেত্রে নিয়ম ব্র্যাক ব্যাংকের মতই। ঋণের মেয়াদ ১-৩ বছর। যোগাযোগঃ ২৯ রাজউক এভিনিউ, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।
স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক:স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক আলাদাভাবে ট্রাভেল লোন প্রদান করে না। তবে যে কেউ পার্সোনাল লোন নিয়ে ট্রাভেল করতে পারেন। চাকরিজীবির ক্ষেত্রে ন্যূনতম বেতন ১৫ হাজার টাকা হলে পার্সোনাল লোনের জন্য আবেদন করতে পারেন। লোন পাবেন সর্বোচ্চ বেতনের ১৫গুন। সর্বনিম্ন এক লাখ থেকে ১০ লাখ টাকা লোন প্রদান করে থাকে এই ব্যাংক। যোগাযোগঃ ৬৭, গুলশান এভিনিউ, গুলশান-১, ঢাকা।

About The Author

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *