Select your Top Menu from wp menus
Last updated: 29/03/2021 at 10:14 PM | আজ বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১ রমজান, ১৪৪২ হিজরি
শিরোনাম

নাচোল-আড্ডা সড়কে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৯ জন আহত

শাহজাহান শাজু: চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল-আড্ডা সড়কে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৯ জন আহত, ৫ জনের অবস্থা আশংকা জনক।
১০মে (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টার দিকে নাচোল-আড্ডা সড়কে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার টগরইল গ্রাম সংলগ্ন বাঘা ব্রীজের দক্ষিণে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৯ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে ৫ জনকে আশংকা জনক অবস্থায় রামেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি ১৪ জনকে নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
আহতরা হলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার পালশা গ্রামের মুরশেদ আলম(৪০), হুজরাপুর গ্রামের বাদশা(৩৭), নাখরাজ পাড়ার খুবাইর(৩০), গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর বাজারের শফিকুল ইসলাম(৪৫), শিবগঞ্জ উপজেলার কমলাকান্তপুর গ্রামের নাহিদ(২৫) ও ত্রিমুহনী গ্রামের মফিজুলের ছেলে জনি(২৫), নাচোল উপজেলার কাঁটাকুড়ি গ্রামের অজেদ আলী(৪৫), সাপাহার উপজেলার মাষ্টার পাড়ার মইদুল ইসলাম(৪৮), সুলতানা(২০), সাবানা আক্তার(২০), ফারহানা(৪০), নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলার তরিকুল ইসলাম(৩৫), সাপাহার উপজেলার জবাই গ্রামের সাগরী(৬০), শিশা গ্রামের সুফিয়া বেগম(৩৫), নাজমা(৪২), শীলা(১২), নিয়ামতপুর উপজেলার তল্লা বদলপুর গ্রামের মনোয়ারা(৬০) ও ধানসুরা গ্রামের সারোয়ার(১৪), রাজশাহী কাজিহাট্ট্রা এলাকার মনিরুল ইসলাম(৬৬) ও উপশহর এলাকার কামরুজ্জামান রানা(৫০)।
নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আকরাম হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সকাল ১০টার দিকে সাপাহার হতে রাজশাহীগামী বিআরসিটি বাস এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ হইতে আড্ডাগামী নিউ মুক্তা পরিবহন টগরইল গ্রাম সংলগ্ন বাঘা ব্রীজ এলাকায় পৌঁছলে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় দুই বাসের চালক সবচেয়ে বেশী আহত হয়েছে।
এসময় স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যান। নাচোল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক সারোয়ার জাহান জানান, আহতদের মধ্যে নিউ মুক্তা বাসের চালক মুরশেদ আলম ও বিআরটিসি বাসের চালক বাদশা, বাসযাত্রী অজেদ আলী, মনোয়ারা ও সাগরীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে বাস দুর্ঘটনার পর রাস্তার দুই পাশে যাত্রীবাহী ও মালবাহী বাস-ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহনের অসহনীয় জট সৃস্টি হয়। খবর পেয়ে নাচোল থানা পুলিশ ও রহনপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ক্ষতিগ্রস্থ বাস দুটিকে রাস্তা থেকে সরানোর কাজ শুরু করে। প্রায় আধা ঘণ্টা পর নিয়ামতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার কাজে যোগ দেয় এবং প্রায় সাড়ে ৩ঘণ্টা পর দুপুর দেড় টার দিকে সব ধরণের যানবাহনের চলাচল শুরু হয়।

About The Author

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *