Select your Top Menu from wp menus
Last updated: 29/03/2021 at 10:14 PM | আজ শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৪ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ রমজান, ১৪৪২ হিজরি
শিরোনাম

নিউমার্কেটে শিক্ষার্থী-ব্যবসায়ী সংঘর্ষ, আহত ৭

fir
নিউজ ডেস্ক : ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয় মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষে সাতজন আহত হয়েছেন। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় এ সংঘর্ষ শুরু হয়।এরফলে রাজধানীর অন্যান্য সড়কে যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

 প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে নিউ মার্কেটের নূরজাহান মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ আসলে শিক্ষার্থীরা তাদের লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুড়ে। এতে উভয় পক্ষের সাতজন আহত হয়েছেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। এ ঘটনায় নূরজাহান মার্কেটের নিচে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মোটরসাইকেলে আগুন দেয় ক্ষুব্ধ ছাত্ররা।

নিউমার্কেট থানার এসআই আলমগীর হোসেন, জানান, পরস্পরের দুর্ব্যবহারের জের ধরে এ ঘটনা ঘটে। বিকাল সোয়া পাঁচটার দিকে যান চলাচলের জন্য রাস্তা খুলে দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

এদিকে সংঘর্ষের কারণ সম্পর্কে পুলিশের কোনো কর্মকর্তার বক্তব্য পাওয়া না গেলেও শিক্ষার্থী ও দোকানকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শাড়ি কেনাকে কেন্দ্র করে তর্কাতর্কি থেকে এই সংঘর্ষ বাঁধে।

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী আয়ুব আলী বলেন, কলেজের দুই শিক্ষার্থী স্বজনদের নিয়ে হকার্স মার্কেটে বিয়ের শাড়ি কিনতে গেলে দরকষাকষি নিয়ে বাগবিতণ্ডা হয়। তখন শাড়িমেলা নামে দোকানের কর্মচারীরা শিক্ষার্থীর গায়ে হাত তোলে।

তিনি বলেন, তখন তারা চলে আসে । এরপর ওই ছাত্র চার-পাঁচজন নিয়ে আবার দোকানে গেলে হকার্স মার্কেটের মালিক-কর্মচারীরা তাদেরকে আবার মারধর করে। মিলন, পাপনসহ তিনজন আহত হয়। এর পর কলেজের ছাত্ররা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে।

শাড়িমেলার মালিক মোজাম্মেল হোসেন বলেন, একজন মহিলা নিয়ে দুজন শিক্ষার্থী আমাদের দোকানে শাড়ি কিনতে আসে। কর্মচারী ২৮ হাজার টাকা দাম চাইলে তারা ১৫ হাজার টাকা দিয়ে নিয়ে যেতে চায়।
তিনি আরও জানান, কাপড় না দিলে ৫/৭ জন যুবক এসে দোকানে ভাংচুর শুরু করে। তারপর দলবেঁধে কলেজের আরও শিক্ষার্থীরা এসে আক্রমণ করে।

About The Author

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *